বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর, ২০২৩

থানা নেয়নি সাংবাদিক নির্যাতনের মামলা, ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার আবেদন

মোহাম্মদ শরিফুল আলম চৌধুরী, কুমিল্লা : মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে সাংবাদিককে নির্যাতন করার ঘটনায় মামলা না নেওয়ায় কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার ৮ নং ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল আলমসহ সাতজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার আবেদন করেছেন ওই ঘটনার ভিকটিম।

দেবীদ্বার উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম রাজীব আজ বৃহস্পতিবার কুমিল্লা ৪ নং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার আবেদন করেন। আবেদনে দেবীদ্বার উপজেলার ৮ নং ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল আলম(৩৫), উপজেলার খয়রাবাদ গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে বিল্লাল গাজী(৩৩) ও আফসান রুবেল(২৭)কে নামে এবং অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনকে আসামি করা হয়েছে।

বাদী পক্ষের আইনজীবি এডভোকেট সৈয়দ তানভীর আহমেদ ফয়সাল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শুনানির পর বিচারক মো. বেলাল বাদীর জবানবন্দি নথিভুক্ত করেন। মামলা গ্রহণের ব্যাপারে পিবিআইয়ের তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আদালত এ বিষয়ে আদেশ দেবেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানাযায়, গত ৩১ অক্টোবর সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় দেবীদ্বার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ মামলা দায়েরের আশ্বাস দিয়ে কালক্ষেপন করে অভিযোগটি এজহারভূক্ত করেননি। মোবাইল ফোনটিও পুলিশ উদ্ধার করে দেয়নি। ফলে ওই মোবাইল ফোন থেকে ওই সাংবাদিকের পারিবারিক ছবি নিয়ে অশালীন ভাষায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার অব্যাহত রেখেছে।

গত ৩১ আগস্ট সাংবাদিক শফিউল আলম রাজীব- বিরোধি দলের অবরোধের সংবাদ সংগ্রহ এবং উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের সাক্ষাৎকার নিতে তার সরকারী বাসভবন (গোমতীতে) গেলে উপজেলা চেয়ারম্যানের সামনেই তাকে সংখ্যালঘু পরিবারের বাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও মারধরের ঘটনায় সংবাদ প্রচার করায় তাকে অকথ্যভাষায় গালমন্দ, মারধর ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। 

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.