1. admin@meghnarkagoj.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সন্তানকে নিয়ে হলে এসে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন যমজ দুইবোন! দেবিদ্বারে যুব মহিলা লীগের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্ম বার্ষিকীতে দোয়া ও আলোচনা সভা দেবিদ্বারে এমপি-চেয়ারম্যানের দ্বন্ধের তদন্ত প্রতিবেদন ১৫ কার্য দিবসে প্রধান মন্ত্রীর কাছে জমাদানের নির্দেশ আ’লীগ সভাপতি উপর হামলা ও এমপি রাজী’র নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদে দেবিদ্বারে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল দেবিদ্বারে শান্ত হত্যাকান্ডে দুই আসামী গ্রেফতার, খুনিদের গডফাদারকে আইনের আওতায় আনার দাবী এলাকাবাসীর মাহবুবুর রহমানের মাতৃ বিয়োগে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ বাহরাইন জেলা শাখার শোক দেবিদ্বারে উপজেলা চেয়াম্যানের পানিবন্দী ৫০০ পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ দেবিদ্বারে বড় ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে ছোট ভাই খুন দেবিদ্বারে নবাগত ওসি কমল কৃষ্ণ ধরের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় দেবিদ্বারে ছাত্র বলৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক আটক

দেবিদ্বারে সার সংকট, দোকানের সামনে কৃষকের বিক্ষোভ

দৈনিক মেঘনার কাগজ
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ৮৮ বার পঠিত

শাহিদুল ইসলামঃ

দেবিদ্বারে কৃত্রিম সার সংকট দেখিয়ে অতিরিক্ত মূল্য আদায় করার অভিযোগে কয়েকশত কৃষক বিক্ষোভ করেছে এক ডিলারের দোকানে।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টায় উপজেলার সুবিল ইউনিয়নের সার ডিলার হাজী মোঃ শাহ আলমের ওয়াহেদপুর বাজারের সার দোকানের সামনে ওই বিক্ষোভ হয়।

সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, সার নিতে আসা বাজারের ব্যাগ ও এলমুনিয়ামের বলসহ সার বহনের নানা সামগ্রী নিয়ে সার না পেয়ে কয়েকশত কৃষক বিক্ষোভ প্রদর্শণ করছে।

ওয়াহেদপুর গ্রামের ভোক্তভূগী কৃষক মোঃ জামাল ভূঁইয়া জানান, নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সারওয়ার হোসেন মুকুল ভূঁইয়া গত ১১ ফেব্রুয়ারী সার ডিলারকে সতর্ক করে বলেন, এখন থেকে সার দোকানের সামনে লাল ব্যানারে সারের মূল্য তালিকা প্রদর্শন এবং কৃষকরে কাছে সার বিক্রয় করার সময় রসিদের মাধ্যমে টাকা গ্রহন করতে হবে। ওই নির্দেশনার পর আমি ১১শত ৩০ টাকার সার কিনি, তখন আমি রসিদ চাওয়াতে তিনি সারের মূল্য ৮শত টাকা রেখে ৪৩০ টাকা ফেরত দেন। ওই ঘটনা কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে সার কিনতে আসা প্রত্যেক কৃষকই রসিদ দাবী করেন। এই পরিস্থিতিতে সার ডিলার গত এক সপ্তাহ ধরে সার সংকট দেখিয়ে সার বিক্রয় করছেননা। রোববার স্থানীয়দের চাপে ডিলার সার গুদাম খুললে সেখানে অনেক সার মজুদ দেখতে পাই।

কৃষক সুলতান আহমে বলেন, ১হাজার ১শত টাকা মূল্যের ১ বস্তা দানা সার ২ হাজার টাকায়, ৮শত টাকার ইউরিয়া সার ১ হাজার টাকায় এবং ৮ শত টাকার ১ বস্তা ডেব সার ১ হাজার ৪শত টাকায় কিনতে হয়েছে। এ- ৩ বস্তা সারের মূল্য ২ হাজার ৭শত টাকার স্থলে আমার থেকে ৪ হাজার ৪শত টাকা আদায় করলেও কোন রসিদ দেননি।

জানতে চাইলে সার ডিলার হাজী মোঃ শাহ আলম জানান, গত মাস পর্যন্ত পর্যাপÍ সার থাকলেও চলতি মাসে সারের সরবরাহ কম ছিল। তাছাড়া বরাদ্ধকৃত সার কৃষকদের চাহিদার তুলনায় অনেক কম। আমরা কৃষি কর্মকর্তার সাথে আলোচনা সাপেক্ষে কৃষকদের চাহিদা পুরণে এবং সার সংকট নিরসনে ভর্তুকী দিয়ে সার কিনে সরবরাহ করে আসছি। ভর্তৃকী দিয়ে কেনা সার ক্যাশ মেমোতে বিক্রি করা সম্ভব নয়।

আরো পড়ুন :  দেবিদ্বার উপজেলা আ’লীগের ২১ সদস্য বিশিষ্ট সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি গঠন

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুর রউফ বলেন, আমাদের দেশে কোন সার সংকট নেই। তবে ফেব্রুয়ারী মাসের সার বিলম্বে উত্তোলন হলে সংকট থাকতে পারে। এসব সার বিএডিসি, বিসিআইসি এবং আমদানীকারক থেকে সরবরাহ করতে হয়। বিএডিসি, বিসিআইসি’র সার কম সরবরাহ করলেও আমদানীকারকদেও কাছ থেকে পর্যাপ্ত সরবরাহ করা যায়। বিভিন্ন এলাকার সার ডিলারগন যে পরিমান চাহিদার আবেদন করেন আমরা সে চাহিদা অনুযায়ী সার সরবরাহ করে থাকি। প্রতিটা সার ডিলারকে বলা আছে সালু কাপড়ে মূল্য তালিকা লিখে দোকানের সামনে ঝুলিয়ে রাখতে হবে এবং ক্যাশ মেমোর মাধ্যমে সার বিক্রি করতে হবে।

দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আশিক-উন-নবী তালুকদার বলেন, সার সংকট তৈরী করে যদি কেউ সুবিধা নিতে চায় কিংবা উচ্চমূল্যে সার বিক্রি কওে থাকে এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব। ইতিমধ্যে বিষয়টি অবগত হয়েছি, কৃষি অফিসারকে তদন্ত স্বাপেক্ষে রিপোর্ট করতে বলেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা